এবার ট্রেনের টিকিট কাটতে বাধ্যতামূলক হলো জাতীয় পরিচয়পত্র

98

ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটের সুবর্ণ এক্সপ্রেস, মহানগর প্রভাতী, মহানগর গোধূলি, তুর্ণানীশিতা এক্সপ্রেস ও ঢাকা-সিলেট রুটের পারাবত এক্সপ্রেসের যাত্রীদের পরিচয়পত্র দেখিয়ে টিকিট নিতে হবে। ঢাকা-চট্টগ্রাম ও ঢাকা-সিলেট রুটের এ পাঁচটি ট্রেনে এ পদ্ধতি বাধ্যতামূলক করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। বাংলাদেশ রেলওয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা যায়। পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট সব শাখায় নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

রেলপথ সংক্রান্ত স্থায়ী কমিটির সুপারিশে এ সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ রেলওয়ে। ১ জানুয়ারি এ পদ্ধতি কার্যকর করে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। পাইলট প্রকল্পের অংশ হিসেবে প্রথমে সোনার বাংলা ট্রেনের ১৫ ভাগ টিকিটে এই পদ্ধতি চালু করা হয়।

এ বিষয়ে চট্টগ্রাম বিভাগীয় image রেলওয়ে ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ বোরহান উদ্দিন বলেন, আগামী ২০ মার্চ থেকে এ কার্যক্রম চালু হবে। আর এ টিকিট সংগ্রহের জন্য বাংলাদেশ রেলওয়ের ওয়েবসাইট, ই-টিকেটিং ওয়েবসাইট, রেলওয়ের মোবাইল অ্যাপস ও স্টেশন কাউন্টারে জাতীয় পরিচয়পত্র বা জন্মনিবন্ধন সনদ দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে পারবে। ট্রেনে মূল টিকিট দেখাতে হবে। ফটোকপি গ্রহণযোগ্য হবে না। ই-টিকেটের ক্ষেত্রে নিজস্ব আইডিতে সংগৃহীত টিকিটের প্রিন্ট কপি ছবিসহ পরিচয়পত্র বাধ্যতামূলক।

অতীতে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কিনে তা বেশি দামে যাত্রীদের কাছে বিক্রি করে দিত অনেক কালোবাজারি। তবে নতুন ব্যবস্থায় ট্রেনের টিকিটের সঙ্গে নাম, মোবাইল নম্বর ও জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর কিংবা জন্মসনদের নম্বর দেওয়ার ব্যবস্থা থাকায় তা একজনের টিকিট অন্যজনের ব্যবহারের উপায় থাকবে না। ফলে ট্রেনের যাত্রীরাই শুধু টিকিট কাটার ও ব্যবহারের সুযোগ পাবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

অন্য কারো পরিচয় পত্র দিয়ে টিকিট নেয়া যাবে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘যিনি ভ্রমণ করবেন, তার আইডি দিয়ে টিকিট নিতে হবে। নিজ নামে সংগৃহীত টিকিটে ভ্রমণ করার ব্যাপারেও যাচাই-বাছাই করা হবে।’ প্রাথমিকভাবে টিকিট কাটতে জাতীয় পরিচয়পত্র বা জন্মনিবন্ধন সনদ নম্বর দিয়ে টিকিট নেয়া গেলেও ভ্রমণের সময় তা সাথে রাখতে হবে বলে জানান তিনি।

সাধারণ যাত্রীদের জানার সুবিধার্থে কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন,যাত্রীরা জানার সুবিধার্থে বিভিন্ন জাতীয় পত্রিকায় প্রচার-প্রচারণা করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে।

চট্টগ্রাম রেলওয়ে ষ্টেশনে টিকেট কিনতে আসা এক ব্যাংক কর্মকর্তা নাজিমুস সালেহিন বলেন, যাত্রীদের পরিচয়পত্র দেখিয়ে টিকিট নিতে হবে এ পদ্ধতি বাধ্যতামূলক করার কারণে সুবিধা বাড়বে। দালালদের খপ্পড়ে আর পড়তে হবে না, দালালমুক্ত হবে। তবে এ প্রচার-প্রচারণার আরো বাড়াতে হবে। কেননা, অনেকে পত্রিকা পড়ে না। আর এখনো অনেক মানুষের কাছে এ বার্তা পৌঁছায়নি।

মন্তব্য করুনঃ

এই বিভাগের অন্যান্য খবরঃ

পাহাড় কাটার দায়ে পিএইচপি’কে জরিমানা
চোখে মুখে ওদের ক্রিকেটার হওয়ার স্বপ্ন
টেকনাফে ভাষা ও স্বাধীনতা সংগ্রামী এম,এ শুকুর স্মরণ অনুষ্ঠান শনিবার
টেকনাফের ইয়াবার দুর্নাম ঘুচাতে অধ্যাপক মোঃ আলীকে নৌকায় ভোট দিন- সাবেক এমপি বদি
এশিয়ান উইম্যান ভার্সিটির সমাবর্তনে শেরি ব্লেয়ারঃ বিশ্ববৈষম্যের শিকার হচ্ছে রোহিঙ্গারা
হতদরিদ্র মানুষ বিভিন্ন এনজিও'র দ্বারস্থ হয়ে ক্ষুদ্র ঋণে জর্জরিত 
টেকনাফে ৩ নারীর পেটে সাড়ে ৩ হাজার ইয়াবা!
বেকার যুবলীগ নেতার ডুপ্লেক্স বাড়ি নিয়ে রহস্য : অধরাই রয়ে গেল!
দৈনিক কালের কন্ঠ ও দেশবিদেশ পত্রিকায় সাবেক এমপি বদিকে নিয়ে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ
ট্যালেন্ট হান্ট বাংলাদেশ-২০১৯ এর অডিশন সম্পন্ন
চট্টগ্রাম শিক্ষানবিশ আইনজীবী কল্যাণ পরিষদের কমিটি গঠন
বিশিষ্ট ব্যক্তিদের সাথে না'গঞ্জ আর্টিস্ট ফাউন্ডেশনের সৌজন্য সাক্ষাৎ