সরকার ঢাকা মহানগরীতে কোন রাসায়নিক গুদাম থাকতে দেবে না : প্রধানমন্ত্রী

14

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সুস্পষ্টভাবে বলেছেন, সরকার ঢাকা মহানগরীতে কোন রাসায়নিক গুদাম থাকতে দেবে না। তিনি সতর্ক করে দিয়ে বলেন, এ ক্ষেত্রে কোন বাধা সহ্য করা হবে না।
তিনি বলেন, ‘নিমতলী ট্রাজেডির পরে চকবাজারে এধরণের দুর্ঘটনায় বহু মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে। আমরা অবশ্যই রাজধানী থেকে গুদাম সরিয়ে দেব এবং এ ক্ষেত্রে আমরা কোন বাধা মানবো না।’
আজ সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) নব নির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলর এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) নব নির্বাচিত কাউন্সিলদের শপথ গ্রহন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী একথা বলেন।
শেখ হাসিনা বলেন, আবাসিক এলাকায় রাসায়নিকের গুদাম স্থাপন করা যাবে না। ‘রাসায়নিক ব্যবসায়ীরা তাদের শোরুম রাখতে পারবেন এবং সেখান থেকে তাদের পণ্য বিক্রি করতে পারবেন।’
তিনি বলেন, সরকার রাসায়নিক গুদামের জন্য পৃথক জায়গার ব্যবস্থা করবে যাতে দাহ্যবস্তু সেখানে নিরাপদে রাখা যায়।
চকবাজারের অগ্নিকান্ডের ঘটনাকে অত্যন্ত বেদনাদায়ক উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমরা রাসায়নিক গুদাম মালিকদের জন্য পৃথক জায়গা খুঁজছি এবং আমরা তাদের ব্যবসার ক্ষতি করতে চাই না।’
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলামকে শপথ বাক্য পাঠ করান। এ সময় ডিএনসিসি’র ২৬ কাউন্সিলর এবং ডিএসসিসি’র ২৪ জন নবনির্বাচিত কাউন্সিলর এলজিআরডি ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলামের কাছে শপথ নেন।
স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব এসএম গোলাম ফারুক শপথ অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন।
এলজিআরডি ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য এ সময় মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন।
মন্ত্রিপরিষদের সদস্যগণ, ডিএসসিসি মেয়র, সংসদ সদস্যগণ এবং উর্ধ্বতন বেসামরিক ও সামরিক কর্মকর্তাগণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী নবনির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলরদের অভিনন্দন জানান এবং ভোটদানের মাধ্যমে নগরবাসী তাদের ওপর যে দায়িত্ব অর্পণ করেছে, নগরবাসীর সেই আস্থা ও মর্যাদা সমুন্নত রাখার জন্য তাদের প্রতি আহ্বান জানান।
তিনি বলেন, ‘জনগণের নাগরিক সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করতে সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। নগরীকে সুন্দরভাবে সাজাতে আপনাদেরও দায়িত্বশীল হতে হবে, নগরীকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন এবং নগরবাসীর জীবনযাত্রার মানোন্নয়ন ঘটাতে হবে।’
প্রধানমন্ত্রী সিটি কর্পোরেশনকে গতিশীল করে তোলার নির্দেশনা দেন, যাতে আয় বৃদ্ধির মাধ্যমে তারা নিজের পায়ে দাঁড়াতে পারেন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সরকার সিটি কর্পোরেশনগুলোতে বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে এবং স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলোরও কাজ করতে হবে এবং প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে যাতে তারা স্বনির্ভর হতে পারে।’
এ প্রসঙ্গে তিনি চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের কথা তুলে ধরে বলেন, মরহুম এ বি এম মহিউদ্দীন চৌধুরীর নেতৃত্বে দক্ষতার সঙ্গে সিটি কর্পোরেশন পরিচালনায় এক সময় চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নিজের পায়ে দাঁড়িয়েছিল।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, রাজধানীর মোহাম্মদপুরে জেনেভা ক্যাম্পে আটকেপড়া পাকিস্তানীদের জন্য সরকার ফ্লাট নির্মাণ করবে।
তিনি বলেন, সেখানে অনেক বিহারী বাস করেন যারা স্বাধীনতা যুদ্ধকালে পাকিস্তানের প্রতি আনুগত্য প্রদর্শন করেছিল। তবে পাকিস্তান তাদের ফেরত নেয়নি এবং তারা ক্যাম্পে অমানবিক জীবনযাপন করছেন।’
শেখ হাসিনা বলেন, সরকার ইতোমধ্যে তাদের জন্য জায়গা খুঁজছে, সেখানে ফ্লাট নির্মিত হবে যাতে তারা ভালোভাবে বাস করতে পারে।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকার ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ক্লিনার্সদের জন্য ফ্লাট নির্মাণ করবে।
তিনি বলেন, আমরা ইতোমধ্যেই ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ক্লিনার্সদের জন্য ১৩টির মধ্যে ৪টি বহুতল ভবন নির্মাণ করেছি। ডিএনসিসি’র ক্লিনার্সদের জন্যও এ ধরনের ভবন তৈরি হবে।
প্রধানমন্ত্রী নগরীকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা এবং বিদ্যুৎ ও পানির ব্যাপারে সাশ্রয়ী হওয়ার এবং সড়ক দুর্ঘটনা এড়াতে ট্রাফিক আইন মেনে চলার আহ্বান জানান।
শিক্ষার্থীরা যাতে স্কুল ছুটির পর রাস্তা পার হতে পারে সেজন্য সহায়তা করতে মেয়র ও কাউন্সিলরদের নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী।
তিনি বলেন, জনগণের সেবার লক্ষ্যে ঢাকা সিটি কর্পোরেশনকে উত্তর ও দক্ষিণ দুই ভাগে বিভক্ত করা হয়েছে।
সরকারের প্রতিটি পদক্ষেপ হচ্ছে জনবান্ধব একথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকার হাতিরঝিল প্রকল্প বাস্তবায়ন ও অনেক ফ্লাইওভার নির্মাণ করেছে। এছাড়া রাজধানীর যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন ও ট্রাফিক জ্যাম অবসানে মেট্রোরেল ও এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণের কাজ চলছে।
গত ২৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র পদে উপ-নির্বাচন এবং উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের সাধারণ কাউন্সিলর ও নতুন যুক্ত ৩৬টি ওয়ার্ডে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।
উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আতিকুল ইসলাম মেয়র নির্বাচিত হন। তিনি নৌকা প্রতীকে ৮ লাখ ৩৯ হাজার ৩০২ ভোট পেয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি জাতীয় পার্টির শাফিন আহমেদ লাঙ্গল প্রতীকে পেয়েছেন ৫২ হাজার ৪২৯ ভোট।

মন্তব্য করুনঃ